বিচ্ছেদ নিয়ে জানালেন নুসরাত জাহান

15

বিনোদন ডেস্ক : নুসরাত জাহান ও তার স্বামী নিখিল জৈন আলাদা থাকছেন অনেকদিন থেকেই। তাদের বিচ্ছেদ নিয়ে জোর গুঞ্জন চলছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। দুজন দুজনকে ইন্সটাগ্রাম থেকে সরিয়েও নিয়েছেন। এমন সময়ে সেই বিচ্ছেদের গুঞ্জন আরও জোরদার হয়ে উঠে সম্প্রতি ইয়াশের সঙ্গে নুসরাতের সখ্যতা।

তাদের দুজন একসাথে থাকাকে নিয়ে হৈচৈ শুরু হয়ে গিয়েছে। সম্প্রতি ভারতীয় গণমাধ্যমে এসব বিষয় নিয়ে কথা বলেছেন অভিনেত্রী ও সাংসদ নুসরাত জাহান। সেখানে তিনি বলেন, সবাই চিরকাল আমাকে জাজ করে এসেছে। কিন্তু প্রত্যেকবার তো আমি ট্রায়ালের মুখে দাঁড়াতে পারব না।

আমি তো আসামী নই! আর কার সঙ্গে থাকব, ব্যক্তিগত অ্যাকাউন্টে কার সঙ্গে ছবি পোস্ট করব, সেটা একান্তই আমার সিদ্ধান্ত। সামনেই নির্বাচন। এই বিতর্ক আপনার পাবলিক ইমেজের ক্ষতি করবে না? এমন প্রশ্নে নুসরাতের উত্তর, ইলেকশন হ্যাজ নাথিং টু ডু উইথ ইনস্টাগ্রাম পোস্টস।

কে কার সঙ্গে থাকছে বা ছবি পোস্ট করছে— সেটা দিয়ে ভোটের স্ট্র্যাটেজি নির্ধারিত হতে পারে না। আমি যখন প্রথমবার নির্বাচনে লড়েছিলাম, তখন কিন্তু আমার বিয়ে হয়নি। তখনও কিন্তু মানুষ আমায় ভোট দিয়েছিলেন, ব্যক্তিগত জীবনে কী করছি না করছি, সেটা না দেখেই। তিনি আরও বলেন, নুসরাত নিজের কেন্দ্রে যায় না কিংবা সোশ্যাল মিডিয়ায় ছবি দেওয়ার জন্য কাজ করে- এসব বলার জন্য সব সময়ই এক দল লোক থাকবে। আমি সৎ ভাবে নিজের কাজটুকু করে যেতে চাই।

অভিনেত্রী হিসেবে মানুষকে বিনোদন জোগানো আমার কাজ, সাংসদ হিসেবে মানুষের জন্য কাজ করাটাও আমার দায়িত্ব। এই দুটো বিষয় দিয়েই যেন আমাকে বিচার করা হয়। আর আমার ব্যক্তিগত জীবনের সঙ্গে রাজনৈতিক কাজকর্মের কোনও সম্পর্ক নেই। দল বিশ্বাস করে আমাকে দায়িত্ব দিয়েছে। জনপ্রতিনিধি হিসেবে আমি কতটুকু কাজ করেছি, সেটা দিয়েই বিচার করা হোক।

কই, দল তো এ নিয়ে আমায় কোনও প্রশ্ন করেনি? এ রাজ্যের মানুষ একজনের মুখ দেখেই ভোট দেন। এর সঙ্গে আমি কোথায়, কার সঙ্গে বেড়াতে গেলাম— তার কোনও সম্পর্ক থাকতে পারে না। আসছে ১২ ফেব্রুয়ারি মুক্তি পেতে যাচ্ছে এই অভিনেত্রীর নতুন সিনেমা ‘ডিকশনারি’। ব্রাত্য বসু পরিচালিত এই ছবিতে তার বিপরীতে অভিনয় করেছেন আবির চ্যাটার্জি। ছবিটি নিয়ে বেশ আশাবাদী তিনি।