বিজ্ঞানীদের করোনার উৎস সন্ধানে স্বাগত

26

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : উহানের ল্যাব থেকে করোনাভাইরাস ছড়ানোর তত্ত্ব যাচাইয়ে আসা দলকে স্বাগত জানাতে রাজি চীনের উহান ল্যাবের সংশ্লিষ্ট বিজ্ঞানী। প্রফেসর ঝেংলি প্রথমবারের মতো এই ব্যাপারে মুখ খুললেন। এমন সময় তিনি এ কথা বললেন, যখন করোনার উৎস সন্ধানে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা-হু’র প্রতিনিধিদল উহান ভ্রমণের প্রস্তুতি নিচ্ছে।

করোনা ভাইরাসের উৎস সম্পর্কে যে সকল তত্ত্ব আছে তার একটি হলো, ভাইরাস নিয়ে গবেষণার সময় উহানের সরকারি একটি গবেষণাগার থেকে দূর্ঘটনাক্রমে এটি ছড়িয়ে পড়ে। প্রফেসর ঝেংলি উহান ইন্সটিটিউট অব ভাইরোলজির প্রধান। তিনি এর আগে সার্স নামে পরিচিত রোগটিকে শনাক্ত করেছিলেন। তিনিই প্রথম জানান ইউনানের একটি গুহায় বাস করা একটি বাদুর থেকেই এই রোগটি প্রথম ছড়িয়ে থাকতে পারে। এরপর থেকে তিনি পরিচিত চীনা বাদুরমানবী নামে।

এ ধরণের সংক্রমণের ব্যাপারে সারা বিশ্বেই তাকে গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি বলে বিবেচনা করা হয়। ঝেংলি বিভিন্ন দূরবর্তী গুহা থেকে বাদুর ধরে তার নমুনা সংগ্রহ করেন। এরপর তার শরীরের বিভিন্ন ভাইরাস নিয়ে উহানের ল্যাবটিতে গবেষণা করেন। অনেকে এ কারণে ভেবেছিলো ল্যাবটি থেকে ভাইরাস ছড়ানোর সম্ভাবনা উড়িয়ে দেয়া যায় না, যেহেতু প্রথম সংক্রমণ উহানেই ঘটেছিলো।

ঝেংলি বলছেন, তার প্রতিষ্ঠান এখন বিশ্বের বৃহত্তম করোনাভাইরাস গবেষণা প্রতিষ্ঠান। এর নিরাপত্তা অস্বাভাবিক বেশি। তার এর আগে যেসব করোনাভাইরাস পেয়েছেন, তা বর্তমান অতিমহামারীর জন্য দায়ী কোভিড-১৯ নয়। এটি তাদের জন্যও নতুন ভাইরাস ছিলো। সুতরাং তার গবেষণাগার থেকে একটি ভাইরাস বের হয়ে সারা বিশ্বকে আক্রান্ত করেছে এই বক্তব্য বিশ্বাসযোগ্য নয়।