মাদক পাচারের উপযুক্ত প্রমাণ আছে রিয়ার বিরুদ্ধে : এনসিবি

12

বিনোদন ডেস্ক : গ্রেপ্তার হওয়া অভিনেত্রী রিয়া চক্রবর্তী কয়েকবার জামিনের আবেদন করেও জামিন পাননি। সুশান্ত ইস্যুতে মাদক মামলায় এবার রিয়া ও তার ভাই শৌভিকের জামিনের আবেদনের তীব্র বিরোধিতা করে বোম্বে হাইকোর্টে হলফনামা পেশ করল নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরো ওরফে এনসিবি। এনসিবির তরফে সোমবার জোনাল ডিরেক্টর সমীর ওয়াংখেড়ে ওই হলফনামায় দাবি করেন, রিয়ার বিরুদ্ধে মাদক সেবন ছাড়াও পাচার এবং সরবরাহের উপযুক্ত প্রমাণ এনসিবি’র কাছে রয়েছে।

মঙ্গলবার বোম্বে হাইকোর্টে রিয়ার জামিনের শুনানি। গত মঙ্গলবার (২২ সেপ্টেম্বর) মাদক মামলা সংক্রান্ত বিশেষ আদালত এনডিপিএস (নার্কোটিক ড্রাগস অ্যান্ড সাইকোট্রপিক সাবস্ট্যান্সেস) রিয়ার জেল হেফাজতের মেয়াদ বাড়িয়ে ৬ অক্টোবর করে। সেই মর্মেই রিয়ার আইনজীবী সতীশ মানশিণ্ডে তাঁর মক্কেলের জামিনের আবেদন করলে ২৩ সেপ্টেম্বর শুনানির দিন ধার্য করে বম্বে হাইকোর্ট।

যদিও মুম্বাইয়ে লাগাতার বৃষ্টির জন্য হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতি আদালতের ছুটি ঘোষণা করায় তা পিছিয়ে যায়। শুনানির পরিবর্তিত দিন ধার্য হয় আজ মঙ্গলবার। তারই বিরোধিতা করে গতকাল এনসিবি’র ওই হলফনামা পেশ। ওই হলফনামায় দাবি করা হয়, মাদক সেবন, মাদক পাচার, মাদকের সরবরাহের জন্য অর্থ প্রদান এবং সুশান্ত সিংহ রাজপুতের জন্য মাদকের জোগান ছাড়াও নিজের বাড়িকে মাদকের আস্তানা হিসেবে ব্যবহার করেছেন অভিযুক্ত। মাদক চক্রেরও সক্রিয় সদস্য তিনি (রিয়া)।

সমাজের উচ্চস্তরের ব্যক্তি এবং মাদক পাচারকারীদের সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ ছিল তাঁর। পাশাপাশি এনসিবি’র তরফে অনুরোধ, রিয়ার জামিনের আবেদন যেন গৃহীত না হয়। অন্য দিকে রিয়ার তরফে তাঁর কৌঁসুলি পাল্টা দাবি করেন এনডিপিএসের অধীনে দায়ের করা এই মামলা সুপ্রিম কোর্টের আদেশ অনুসারে কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা (সিবিআইয়ের)হাতে স্থানান্তরিত হওয়া উচিত। এই মামলায় এনসিবির কোনও এক্তিয়ার নেই।

একইসঙ্গে তাঁর দাবি, তাঁর মক্কেল নির্দোষ। সুশান্তের মাদকের অভ্যাসের জন্য বেশ কয়েক বার মাদক কিনলেও নিজে কোনওদিন মাদক সেবন করেননি তিনি। সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুতে মাদক যোগ উঠে আসার পর গত ৯ সেপ্টেম্বর রিয়াকে গ্রেফতার করে নার্কোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরো (এনসিবি)। সে বারও ১৪ দিনের জেল হেফাজত হয় রিয়ার।

রিয়ার পক্ষ থেকে জামিনের আবেদন করা হলে তা খারিজ করে দেয় বম্বে আদালত। গত মঙ্গলবার সেই মেয়াদ শেষ হয়ে যাওয়ায়, নতুন করে আদালতে আবেদন জানিয়েছিল এনসিবি। তাতেই আদালত আরও ১৪ দিনের হেফাজত মঞ্জুর করে। পাল্টা রিয়ার তরফেও পুনরায় জামিনের আবেদন করা হয়। এই মুহূর্তে বম্বে আদালতে সেই মামলার শুনানি চলছে।