আসল রত্নপাথরের সেরা ভান্ডার শেষ দর্শন আজমেরী জেমস হাউজ

46

নিউজ ডেস্ক : শেষ দর্শন আজমেরী জেমস হাউজ সব সময়ই শতভাগ আসল রত্মপাথরের নিশ্চিয়তা দিয়ে আসছে। নকল রত্মপাথরে যখন বাজার সয়লাব তখন প্রাকৃতিক রত্নপাথর বিক্রয়ের নির্ভরযোগ্য এই প্রতিষ্ঠানটি ক্রেতাদের হাতে তুলে দিচ্ছে আসল রত্মপাথর। শেষ দর্শন আজমেরী জেমস হাউজ বসুন্ধরা সিটি শপিংমলের নীচ তলার ডি-ব্লকের ৭৩-৭৪ নম্বর দোকানে অবস্থিত। ক্রেতাদের জন্য প্রতিষ্ঠানটি যে কোনো ধরনের আসল ও খাঁটি রত্নপাথর কেনাকাটায় দিচ্ছে বিশেষ সুবিধা ।

প্রতিষ্ঠানটির কর্ণধার প্রখ্যাত জ্যোতিষরাজ লিটন দেওয়ান চিশতী জানান, স্বাস্থ্যবিধি মেনেই শেষ দর্শন আজমেরী জেমস হাউজ কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে। এ ছাড়াও তিনি রাষ্ট্রীয় অনুশাসন মেনে ট্যাক্স ভ্যাট পরিশোধ করে দীর্ঘ ৩০ বছর ধরে মানবসেবা করছেন। তিনি বলেন, আমার বাবা মরহুম মো. আবদুস সাত্তার দেওয়ান চিশতী ইসলামের আলোকে আলোকিত অতি উচ্চমানের একজন আধ্যাত্মিক সাধক ছিলেন। আমি তার দেখানো পথেই চলছি।

প্রখ্যাত জ্যোতিষরাজ লিটন দেওয়ান বলেন, বাজারে নানা রকম রত্নপাথর পাওয়া যায়। চোখ ধাঁধিয়ে যায় তাদের রং আর উজ্জল বর্ণচ্ছটার আভা দেখলে। কিন্তু এসব রত্নপাথরের ভিড়ে কি করে চিনবেন বা কিনবেন আসল পাথর। রত্নপাথর আসল নাকি নকল বোঝার জন্য প্রয়োজন অভিজ্ঞ চোখ। জানতে হবে, রত্নপাথরের আকৃতি, রঙ, স্বচ্ছতা ও ভেতর সুক্ষ্ম যে সব অবাঞ্চিত পদার্থ থাকে সে সম্পর্কে, তার বিন্যাস দেখে প্রাথমিক ধারণা তৈরি করতে হবে।

জ্যোতিষরাজ লিটন দেওয়ান চিশতী আরো বলেন, এ ব্যাপারে সঠিক ধারণা পাওয়ার জন্য অনুবীক্ষণ যন্ত্রের সাহায্য নিতে হবে। তবে রত্নপাথর যাচাই করার সবচেয়ে ভাল উপায় হল রত্নপাথরের প্রতিসরণাংক যাচাই। রত্নপাথরের প্রতিসরণাংক জানা থাকলে তালিকার সঙ্গে মিলিয়ে রত্নপাথরের সঠিক পরিচয় পাওয়া সম্ভব। কারণ কোনো বিশেষ রত্নপাথরের প্রতিসরণাংক নির্দিষ্টের হেরফের বিশেষ দেখা যায় না।